১৫০০ মিনিট আগের আপডেট; রাত ৫:১০; সোমবার ; ১৬ জুন ২০২৪

প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ

অনলাইন ডেস্ক: ১৭ এপ্রিল ২০২১, ১৪:২৬

‘চকরিয়ায় পাওনা টাকা উদ্ধারে লিগ্যাল নোটিশ’ শীর্ষক শিরোনামে ডেইলি বার্তা ৭১ নামে একটি অনলাইনে প্রকাশিত হয় ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসুবকে পোষ্ট দেওয়া হয়। প্রকাশিত সংবাদটির প্রতিবাদ জানিয়েছেন চকরিয়া উপজেলার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের মুসলিমপাড়ার গ্রামের আবু তাহের’র পুত্র মোহাম্মদ কাইছার। 

প্রকাশিত সংবাদ মোহাম্মদ কাইছারের দৃষ্টিগোচর হয়েছে। প্রকৃত ঘটনাকে আড়াল করতে মিথ্যা ও ভিত্তিহীন কাহিনী সাজিয়েছে। এই রকম পরিকল্পনা বুঝতে পেরে চলতি মাসের ১১এপ্রিল চকরিয়া থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছি তিনি। 

মোহাম্মদ কাইছার লিখিত বক্তব্যে জানান, ‘চকরিয়ায় পাওনা টাকা উদ্ধারে লিগ্যাল নোটিশ’ শিরোনামে অনলাইনে প্রকাশিত সংবাদ ও ফেসবুকে ছড়িয়ে দেওয়া হয়েছে তা সম্পুর্ণ মিথ্যা, বানোয়াট ও ভিত্তিহীন। প্রকৃত ঘটনার বর্ণনা দিয়ে তিনি জানান, ‘আমি একজন ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী হই। ইসলামী শরিয়ত মোতাবেক ০১/০৯/২০০৭ইং পৌরসভার মৌলভীরকুম এলাকার নিজপানখালীর হাবিবুর রহমানের মেয়ে বেবি আক্তারকে বিয়ে করি। আমাদের সংসার জীবনে এক ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে। সংসার জীবন বনিবনা না হওয়ায় ১৪/০৩/২০২১ ইং আমরা আলাদা হয়ে যায়। আপোষ ও মিমাংসা বৈঠকে বেবি আক্তারের দেনমোহর ১লক্ষ টাকার স্থলে ১লক্ষ ৫০হাজার টাকা প্রদান করি। যার ডকুমেন্টসহকারে আমার কাছে আছে। একমাত্র ছেলে আমার কাছে আছে। ২হাজার টাকা ভরণ-পোষণ দেওয়ার চুক্তি করে মেয়ে বেবি আক্তারের কাছে রাখেন। 

তখন আপোষ ও মিমাংসা বৈঠকে কৌশলে ৩টি ৩০০টাকার স¦াক্ষরযুক্ত খালি ষ্টাম্পে নেন। পরে বেবির নিকট আত্মীয় ওমর ফারুক ইমন, হামিদ হোসেন বাবু, বেলাল, শাবনুর আক্তার ও আবদুল মজিদ মিলে  কৌশলে তিনটি খালি ষ্টাম্প কেড়ে নিয়ে পেলে। এছাড়াও আমার সন্তানদের নামে কেনা বসতভিটা ও স্থিত ঘর জবর-দখল করে। পরে সংবাদে লিগ্যাল নোটিশে উল্লেখ করেছে শাবনুর আক্তার আমাকে তিন লক্ষ টাকা হাওলাত দেন। তা বানোয়াট ও ভিত্তিহীন। মুল ঘটনা হচ্ছে, কেড়ে নেওয়া তিনটি খালি ষ্টাম্পে কৌশলে তারিখ উল্লেখ করে ইচ্ছে মতো টাকার অঙ্ক বসিয়ে আমাকে ফাঁসাতে চেষ্ঠা করছে। সংবাদটি মনগড়া, একপক্ষীয় ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। এমনকি তাদের ব্যক্তিগত ফেসবুকে ওয়ালে আমার সম্মানহানিকর পোষ্ট দিয়েছে। এই নিয়ে আইনী পদক্ষেপ নিব। 

পরিশেষে অনুমান করছি, মুলত আমার প্রাক্তন স্ত্রী বেবি আক্তার তাসের পুতুল বানিয়ে এই অর্থ হাঁতানোর পরিকল্পনা সাজানো হয়েছে। প্রকাশিত সংবাদটি সম্পুর্ণ মিথ্যা, বানোয়াট ও ভিত্তিহীন। আমি প্রকাশিত সংবাদের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। এই সংবাদে কাউকে বিভ্রান্ত না হওয়ার অনুরোধ করছি। 

প্রতিবাদকারী 

মোহাম্মদ কাইছার
মুসলিমপাড়া, ৮নং ওয়ার্ড, ফাঁসিয়াখালী, চকরিয়া।