১০০ মিনিট আগের আপডেট; রাত ৯:৩২; রবিবার ; ০৪ ডিসেম্বর ২০২২

চকরিয়ায় প্রবাসীর বাড়িতে হামলা, লুটপাট ও মারধরের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক ২৪ নভেম্বর ২০২২, ১৪:৩২

কক্সবাজারের চকরিয়ায় ইউপি চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে প্রকাশ্যে এক প্রবাসীর নির্মাণাধীন বাড়িতে হামলা, ভাংচুর, লুটপাট, মারধর ও চাঁদা দাবির অভিযোগে আদালতে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের পক্ষ থেকে প্রশাসনের সহযোগিতা চেয়ে বৃহস্পতিবার দুপুরে চকরিয়া উপজেলা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেছে কোনাখালী ইউনিয়নের বটতলী এলাকার মালয়েশিয়া প্রবাসী মোঃ কায়সারের পরিবার।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে প্রবাসী মোঃ কায়সারের স্ত্রী রাজিয়া সোলতানা বলেন, দীর্ঘ বিশ বছর পূর্বে ৬০ কড়া জমি ক্রয় করে ঘর তৈরি পূর্বক বসবাস করে আসছেন।

সম্প্রতি সময়ে পাকা ঘর নির্মাণ করতে গেলে স্থানীয় কিছু ভুমিদস্যু চাঁদা দাবি করে বারবার কাজে বাধা দিয়ে তাদের হয়রানি করে।

এনিয়ে কয়েকবার শালিস দরবারও হলেও চাঁদাবাজ চক্র তা কর্ণপাত করেনা উল্লেখ করে তাদের বিরুদ্ধে চাকরিয়া থানায় জি আর ৫১৯/২২ মামলা দায়ের করেন।

এতে তারা আরও ক্ষিপ্ত হয়ে গত ২০ নভেম্বর (রবিবার) দুপুরে পার্শ্ববর্তী সাহারবিল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নবী হোছাইন চৌধুরীসহ তার পালিত সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে আমার নির্মাণাধীন ভবনে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর চালায়, আমরা বাঁধা দিতে গেলে আমাদের মারধর করে।

আমার দুটি মেয়ে সন্ত্রাসীদের ভাংচুর, লুটপাট ও মারধরের ঘটনা মোবাইলে ধারণ করায় তাদেরকে নির্যাতন পূর্বক শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে। মারধর করে মারাত্মকভাবে জখম করে এবং ঘর নির্মাণের জন্য সংগ্রহে রাখা ৫ লক্ষ টাকা ও চারটি মোবাইল ফোন অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ছিনিয়ে নেয়।

ন্যাক্কারজনক ঘটনায় স্থানীয় মৃত বশরত আলীর পুত্র মেহেদী হাসান বাচ্চু ও সাহারবিল ইউপি চেয়ারম্যান নবী হোছাইন চৌধুরীসহ ১১ জনের নামে চকরিয়া সিনিয়র জুড়িসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সি আর ২০০৬/২২ মামলা দায়ের করেছেন বলেও জানান এই প্রবাসীর স্ত্রী।

উক্ত সংবাদ সম্মেলনে প্রবাসীর কায়সারের মা খালেদা বেগম, কন্যা এমি সোলতানা কলি ও প্রতিবেশী মোঃ রফিকের স্ত্রী মাবিয়া বেগম বক্তব্য রাখেন।