১৪৯২ মিনিট আগের আপডেট; রাত ৫:০২; সোমবার ; ১৬ জুন ২০২৪

মুজিববর্ষে প্রধানমন্ত্রীর উপহারের বাড়ি পরিদর্শন করলেন এমপি জাফর আলম

নিজস্ব প্রতিবেদক ২১ মার্চ ২০২৩, ২০:২৬

কাল বুধবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সারাদেশের বিভিন্ন উপজেলার ন্যায় কক্সবাজারের চকরিয়া ও পেকুয়া উপজেলাকে ভূমিহীন ও গৃহহীনমুক্ত উপজেলা হিসেবে ঘোষণা দেবেন। একইসাথে দুই উপজেলার ২১৯টি পরিবারকে নতুন করে হস্তান্তর করা হবে মুজিবশতবর্ষ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহারের ঘর। এই লক্ষ্যে দুই উপজেলা প্রশাসন ইতোমধ্যে ব্যাপক প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছেন। 

এদিকে সর্বশেষ নতুন বাড়িতে উঠতে যাওয়া ২১৯টি পরিবারের জন্য বরাদ্দকৃত নতুন বাড়িগুলো পরিদর্শন করেছেন কক্সবাজার-১ আসনের সংসদ সদস্য ও চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ জাফর আলম এমএ। এ সময় তিনি বাড়িগুলোর নির্মাণকাজ সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে সম্পন্ন করায় সংশ্লিষ্টদের ধন্যবাদ জানান।

একসঙ্গে ১৮৩টি পরিবার পুনর্বাসিত হবেন চকরিয়ার পূর্ব বড় ভেওলা ইউনিয়নের সেকান্দর পাড়ায়। মঙ্গলবার (২১ মার্চ) দুপুরে সেই বিশাল পাড়ার বাসিন্দা তথা উপকারভোগীদের সঙ্গে কথা বলেন এমপি জাফর আলম। এ সময় সাথে ছিলেন চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) জেপি দেওয়ান, এমপির ব্যক্তিগত সহকারি আমিন চৌধুরী, পূর্ব বড় ভেওলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ফারহানা আফরিন মুন্না, পূর্ব বড় ভেওলা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি শামীম ওয়াহিদ, মাতামুহুরী উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক সোহেলসহ আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ। 

উল্লেখ্য- ২০১৭ সালে ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবার হিসেবে তালিকাভুক্ত হয় ১০৩২টি পরিবার। তন্মধ্যে তিনদফায় পুনর্বাসিত হয়েছেন ৮১৩ পরিবার। বাকী ২১৯ পরিবার চুড়ান্তভাবে নতুন ঘরে উঠবেন আজ বুধবার। তন্মধ্যে চকরিয়ায় ১৯২ পরিবার এবং পেকুয়া ২৭ পরিবার। 

চকরিয়া ও পেকুয়া উপজেলা নিয়ে সংসদীয় আসন কক্সবাজার-১। এই আসনের সংসদ সদস্য ও চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ জাফর আলম এমএ বলেন, ‘জেলার চারটি সংসদীয় আসনের মধ্যে প্রথমবারের মতো আমার আসনকে ভূমিহীন ও গৃহহীনমুক্ত ঘোষণা দেবেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।’

এমপি বলেন, ‘আমার নির্বাচনী এলাকার ১০৩২টি ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে পুনর্বাসন করার প্রধানমন্ত্রীর প্রতি আমি কৃতজ্ঞ। কারণ, পরিবারগুলোর অভিভাবক হিসেবে মা-বাবা যা করতে পারেননি তা-ই করে দেখিয়েছেন আমাদের প্রধানমন্ত্রী।’