১৪৬ মিনিট আগের আপডেট; রাত ৩:৩২; সোমবার ; ২০ মে ২০২৪

অবিশ্বাস্যভাবে বাংলাদেশের সিরিজ জয়

আমার কক্সবাজার ডেস্ক : ১৫ মে ২০২৩, ১০:৪৮

অবিশ্বাস্য জয় পেয়েছে বাংলাদেশ। সেটাও আবার শেষ বলে। অবিশ্বাস্য নাটকীয়তায় চেমসফোর্ডে আরেকটি অসাধ্য সাধন করলো বাংলাদেশ।

যে ম্যাচে হার প্রায় নিশ্চিত হয়ে গিয়েছিল, সেই ম্যাচে ৫ রানের জয় তুলে নিয়ে শেষ হাসি হেসেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডেতে নাটকীয় এই জয়ে ২-০ ব্যবধানে সিরিজও জিতে নিয়েছে টাইগাররা।

প্রথম ম্যাচটি বৃষ্টির কারণে পরিত্যক্ত হয়েছিল। আইরিশদের সামনে লক্ষ্য ছিল ২৭৫ রানের। ৪১ ওভার শেষে ৩ উইকেটেই ২২৩ রান তুলে ফেলে স্বাগতিকরা। ৫৪ বলে দরকার ৫২, হাতে ৭টি উইকেট। বাংলাদেশের সামনে তখন নিশ্চিত হার।

এমন সময়ে বাজি ধরেন তামিম ইকবাল। টাইগার অধিনায়ক আক্রমণে আনেন অকেশনাল স্পিনার নাজমুল হোসেন শান্তকে। শান্ত নিজের প্রথম ওভারেই উইকেট এনে দেন অধিনায়ককে। সেট ব্যাটার হ্যারি টেক্টরকে (৪৮ বলে ৪৫) আউট করেন অফস্পিনে।

এরপরই ভোজবাজির মতো পাল্টে যায় ম্যাচ। মোস্তাফিজুর রহমান আর শান্ত মিলে আইরিশদের টুঁটি চেপে ধরেন। রান আটকে রেখে চাপ তৈরি করেন। ফলে কোণঠাসা হয়ে পড়েন আইরিশরা। শান্ত একপাশে রান আটকে রাখেন, মোস্তাফিজ টানা তিন ওভারে নেন উইকেট। ফলে ৩ উইকেটে ২২৫ রান তোলা দলটিই ৯ উইকেটে ২৬৯ রানে থেমে যায়। অর্থাৎ আইরিশরা ৬ উইকেট হারান ৪৪ রানে।

শেষ ওভারে আয়ারল্যান্ডের দরকার ছিল ১০ রান। হাসান মাহমুদ শেষ ভেল্কিটা দেখান, ঠান্ডা মাথায় বল করে। প্রথম ৫ বলে মাত্র ৪ রান দিয়ে তরুণ এই পেসার তুলে নেন ২টি উইকেট।

শেষ বলে আয়ারল্যান্ডের দরকার ছক্কা। পিনপতন নীরবতা তখন স্টেডিয়ামে। হাসান দেন দুর্দান্ত এক ইয়র্কার। বল গিয়ে সরাসরি আঘাত করে উইল ইয়ংয়ের প্যাডে। রান হয়নি। ততক্ষণে উল্লাসে ফেটে পড়েন গ্যালারিতে থাকা বাংলাদেশি সমর্থকরা। উল্লাস বাংলাদেশ শিবিরে।