১৫১৬ মিনিট আগের আপডেট; রাত ৫:২৬; সোমবার ; ১৬ জুন ২০২৪

ভোটার হতে নির্বাচন কার্যালয়ে ভিড়, ফরম জমা দেওয়া যাবে আজও

ছোটন কান্তি নাথ : ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ১১:৩৬

ভোটার হওয়ার জন্য চকরিয়া নির্বাচন কার্যালয়ে ভিড় জমিয়েছেন স্থানীয় নাগরিকরা; উদ্দেশ্য আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোট দেওয়া। স্থানীয় নাগরিকের পাশাপাশি প্রবাসীরাও আছেন ভোটার তালিকায় নিজেদের নাম অন্তর্ভুক্ত করতে। শুধুমাত্র গত দুদিনে ২শ নাগরিক ভোটার হওয়ার জন্য ফরম জমা দিতে পেরেছেন।

সম্প্রতি নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে ঘোষণা দেওয়া হয়, আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠানকে লক্ষ্য ধরে চলতি বছরের পহেলা জানুয়ারি যাদের বয়স ১৮ পূর্ণ হয়েছে তাঁরা ভোটার তালিকায় অন্তর্ভুক্তির জন্য আবেদন করে ভোটার হতে পারবেন। কিন্তু তাদেরকে ১৪ সেপ্টেম্বরের মধ্যেই আবেদন করতে হবে। এই নির্দেশনা গণমাধ্যমে প্রচারের পরই মূলত সারাদেশের মতো কক্সবাজারের চকরিয়ায়ও ভোটার তালিকায় নাম লেখাতে ভিড় করতে দেখা গেছে আগ্রহীদের।

আজ বৃহস্পতিবার অফিস চলাকালীন সময় পর্যন্তও জমা নেওয়া হবে কাগজপত্র। অবশ্য গত দুদিনে নির্বাচন কমিশনের নির্দেশনা না পাওয়ার অভিযোগ তুলে অনেক নাগরিককে ফরম না দিয়ে ফেরতের অভিযোগ উঠেছিল। সেই অস্পষ্টতা এখন কেটে গেছে।

চকরিয়া উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয়ের প্রধান সহকারী মো. নুরুল হুদা জানান, নির্বাচন কমিশন সচিবের নির্দেশনার পর গত দুইদিনে নতুন করে ভোটার হওয়ার জন্য ভিড় করেছেন শত শত আগ্রহী। এদের মধ্যে সিংহভাগই হচ্ছেন নারী-পুরুষ শিক্ষার্থী। আবার বিদেশ যাওয়ার জন্যও অনেকের এনআইডির প্রয়োজন হওয়ায় কাগজপত্র জমা দিয়েছেন।

প্রধান সহকারী নুরুল হুদা আরও জানান, গত দুইদিনে নতুন করে ভোটার হওয়ার জন্য ফরম পূরণ করে জমা দিয়েছেন প্রায় ২০০ জন। তাদেরকে ফরম জমা নেওয়ার সময় একটি করে স্লিপ সরবরাহ দেওয়া হয়েছে। যাতে তাদের মোবাইল ফোনে বার্তা যাওয়ার পর নির্দিষ্ট তারিখে ছবি তোলা, বায়োমেট্রিক নেওয়াসহ যাবতীয় কার্যাদি সম্পন্ন করা যায়।

প্রধান সহকারী জানান, ইতোপূর্বে জমা নেওয়া প্রায় ৪০০ জন নতুন ভোটারের ছবি তোলা, বায়োমেট্রিকসহ নানা তথ্য-উপাত্ত নেওয়ার কাজ চলমান রয়েছে। কিন্তু জনবল সংকট থাকায় ওই সেবা দিতে হিমশিম খেতে হচ্ছে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের।

ভোটার হওয়ার আবেদনকারী চট্টগ্রাম এমইএস কলেজের শিক্ষার্থী চকরিয়ার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের গাবতলী বাজারের আশরাফুল হাসান নিশাদ বলেন, ‘ভোটার তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হতে সব কাগজপত্র নিয়ে গত তিনদিন ধরে ঘুরেছি নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয়ে। কিন্তু কোনো কাজ হয়নি।

ফরম জমা নিচ্ছে শুনে আজ (গতকাল) বুধবার সকালে গিয়ে আমার ফরম জমা দিতে পেরে বেশ খুশি লাগছে।’ নতুন ভোটার হতে আসা শাহরিয়ার জহির অভিসহ কয়েকজন বলেন, একনাগাড়ে তিনদিন ধরে ফরম জমা দেওয়ার জন্য ঘুরেছি। অনেকের দ্বারস্থও হয়েছি ফরম জমা দিতে। কিন্তু বার বার ব্যর্থ হয়েছি। অবশেষে ফরম জমা নেওয়ায় স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলেছি।’

চকরিয়া উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. ইরফান উদ্দিন বলেন, ‘নতুন করে ভোটার করার বিষয়ে কমিশন সচিব মহোদয়ের নির্দেশনার লিখিত কপি এখনো আমার দপ্তরে পৌঁছেনি। এরপরও গণমাধ্যমে বিষয়টি জানার পর আমরা নতুন আবেদন জমা নিচ্ছি। এই কার্যক্রম চলবে ১৪ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। এর পর আর কাউকে সুযোগ দেওয়া হবে না।’