৯৬ মিনিট আগের আপডেট; রাত ২:৪২; সোমবার ; ২০ মে ২০২৪

চকরিয়ায় স্থানীয় সরকার দিবসের আলোচনা সভায় এমপি জাফর আলম

বার্তা পরিবেশক ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ১৯:১৬

কক্সবাজার-১ আসনের সংসদ সদস্য ও চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ জাফর আলম এমএ বলেছেন- বর্তমান সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নানা কর্মসূচী ও প্রকল্প বাস্তবায়নের মাধ্যমে স্থানীয় সরকারকে ঢেলে সাজাচ্ছেন। অতীতে একজন ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মাত্র ৫ হাজার টাকার পর্যন্ত শালিস করে রায় দিতে পারতেন। সেই জায়গায় বর্তমানে ৭৫ হাজার টাকা পর্যন্ত বৃদ্ধি করেছেন। একইসাথে স্থানীয় সরকার কাঠামোকে আরো শক্তিশালী করতে নানা উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন। প্রথমবারের মতো স্থানীয় সরকার দিবস উদযাপন শুরু করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এর অর্থ হচ্ছে, জনগণের দোরগোড়ায় সরকারের পরিষেবা পৌঁছে দেওয়া। 

এমপি জাফর আলম বলেন, আমার গ্রাম আমার শহর শ্লোগানে দেশের প্রত্যন্ত এলাকায়ও উন্নয়নের ছোঁয়া লেগেছে বিগত ১৫ বছরে। আগামীতেও স্থানীয় সরকারকে আরো বেশি শক্তিশালী করতেই প্রচেষ্টা চালাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। 

এমপি জাফর আলম রবিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) সকালে ‘সেবা ও উন্নতির দ রূপকার, উন্নয়নে-উদ্ভাবনে স্থানীয় সরকার' এই প্রতিপাদ্যকে সামনে নিয়ে সারাদেশের ন্যায় কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে স্থানীয় সরকার দিবস উপলে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। এর আগে অনুষ্ঠিত হয় বর্ণাঢ্য র‌্যালি। র‌্যালিটি উপজেলা পরিষদ চত্বর থেকে শুরু হয়ে প্রধান সড়ক প্রদণি শেষে উপজেলা পরিষদের অডিটোরিয়াম 'সুগন্ধা' মিলনায়তনে এক আলোচনা সভায় মিলিত হয়।

চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) জেপি দেওয়ানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, চকরিয়া-পেকুয়া আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব জাফর আলম। চকরিয়া উপজেলা প্রকৌশলী সাফায়াত ফারুক চৌধুরী সঞ্চালনায় আয়োজিত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন, চকরিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফজলুল করিম সাঈদী, চকরিয়া পৌরসভার মেয়র আলমগীর চৌধুরী, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) রাহাত উজ জামান, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মকছুদুল হক ছুট্টু, নারী ভাইস চেয়ারম্যান জেসমিন হক জেসি চৌধুরী, পশ্চিম বড় ভেওলা ইউপি চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী (বাবলা), সুরাজপুর-মানিকপুর ইউপি চেয়ারম্যান আজিমুল হক আজিম।

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন, কোনাখালী ইউপি চেয়ারম্যান দিদারুল হক সিকদার, বদরখালী ইউপি চেয়ারম্যান নুরে হোছাইন আরিফ, বমুবিলছড়ি ইউপি চেয়ারম্যান মনজুরুল কাদের, হারবাং ইউপি চেয়ারম্যান মেহরাজ উদ্দিন মিরাজ, ফাঁসিয়াখালী ইউপি চেয়ারম্যান হেলাল উদ্দিন হেলালী, কাকারা ইউপি চেয়ারম্যান শাহাব উদ্দিন, চিরিংগা ইউপি চেয়ারম্যান জামাল হোসেন চৌধুরী, পূর্ব বড় ভেওলা ইউপি চেয়ারম্যান ফারহানা আফরিন মুন্না, ডুলাহাজারা ইউপি চেয়ারম্যান হাসানুল ইসলাম আদর, খুটাখালী ইউপি চেয়ারম্যান মৌলানা আবদুর রহমান, ল্যারচর ইউপি চেয়ারম্যান আওরঙ্গজেব বুলেট, সাহারবিল ইউপি চেয়ারম্যান নবী হোছাইন চৌধুরী, বিএমচর ইউপি চেয়ারম্যান এস এম জাহাঙ্গীর আলম, ঢেমুশিয়া ইউপি চেয়ারম্যান মঈন উদ্দীন আহমদ চৌধুরী, বরইতলী ইউপি চেয়ারম্যান ছালেকুজ্জামান। জাতীয় স্থানীয় সরকার দিবসের এ অনুষ্ঠানে  সরকারি বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা, সাংবাদিক, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ ও স্থানীয় জনসাধারণ উপস্থিত ছিলেন।

চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) জেপি দেওয়ান বলেন, মূলত জনসচেতনতা তৈরি এবং স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানগুলোর সঙ্গে জনগনের সম্পৃক্ততা বাড়াতে দিবসটি পালন করা হয়।  দেশে প্রথম বারের মত এই দিবসটি পালিত হচ্ছে। সরকার তার উন্নয়ন কর্মকান্ড পরিচালনার জন্য স্থানীয় সরকার গঠন করে থাকেন। তারই ধারাবাহিকতায় কেন্দ্র থেকে প্রান্তিক পর্যায়ে স্থানীয় সরকার পরিষদের উন্নয়ন কাজ চলমান রয়েছে। বিশেষ করে পারিবারিক ও সামাজিক সমস্যা সমাধানেও স্থানীয় সরকার বিশেষ ভূমিকা রেখে যাচ্ছে। স্থানীয় সরকার সম্পর্কে দেশের প্রতিটি নাগরিককে আরো বেশি করে জানতে হবে।