৭১ মিনিট আগের আপডেট; রাত ২:১৭; সোমবার ; ২০ মে ২০২৪

জননেতা নুরুল আবছারকে মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনায় সাবেক এমপি জাফরের একাত্মতা

প্রেস বিজ্ঞপ্তি : ১২ মে ২০২৪, ২২:১৬

কক্সবাজার সদর উপজেলা নির্বাচনে বিপুল ভোটে উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ায় মুক্তিযোদ্ধা জননেতা নুরুল আবছারকে কক্সবাজার জেলার সর্বস্তরের বীর মুক্তিযোদ্ধারা সংবর্ধিত করেছেন।

আজ ১২ই মে রবিবার সকাল ১১টায় কক্সবাজার জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত সংবর্ধনা সভায় সভাপতিত্ব করেন কক্সবাজার জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আলী।

অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত, গীতাপাঠ ও ধর্মগ্রন্থ ত্রিপিটক থেকে পাঠ করা হয়। সমগ্র অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন বিশিষ্ট সিনিয়র সাংবাদিক ডেইলী স্টার পত্রিকার রিপোর্টার মোঃ আলী জিন্নাত।

আলোচনা অনুষ্ঠানের প্রারম্ভে সংবর্ধিত বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল আবছারকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন-ঈদগাঁও উপজেলার সাবেক উপজেলা কমান্ডার ডাঃ শামসুল হুদা, সদর উপজেলা কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব সিরাজুল ইসলাম, মহেশখালী উপজেলার সাবেক কমান্ডার সালেহ আহমেদ, পেকুয়া উপজেলার সাবেক কমান্ডার সাবের আহমেদ, চকরিয়া উপজেলার সাবেক কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা হাজী বশিরুল আলম, উখিয়া উপলোর সাবেক কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা পরিমল বড়ুয়া।

রামু উপজেলার সাবেক কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা রনধীর বড়ুয়া ছাড়াও মুক্তিযোদ্ধাদের অনুষ্ঠানে যোগদান করে একত্বতা প্রকাশ করেছেন চকরিয়া-পেকুয়া আসনের সাবেক এমপি ও আগামী ২১ শে মে চকরিয়া উপজেলা পরিষদের নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী আলহাজ্ব জাফর আলম এম.এ।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা নঈমুল হক চৌধুরী টুটুল, হাজী বশিরুল আলম, সাবেক অধ্যক্ষ বীর মুক্তিযোদ্ধা শাহাবুদ্দীন আহমেদ, বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু তাহের চৌধুরী, কক্সবাজার কলেজের সাবেক ভিপি বীর মু্িক্তযোদ্ধা সিরাজুল হক রেজা, বীর মুক্তিযোদ্ধা সমীর বরণ পালসহ প্রমুখ মুক্তিযোদ্ধাবৃন্দ।

সংবর্ধনার জবাবে বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল আবছার বলেন, মুক্তিযোদ্ধাদের আজকের এই ফুলেল সংবর্ধনা জীবনে কোনদিন ভুলবো না। আমৃত আমি অসহায় হত- দরিদ্র এবং দলমত নির্বিশেষে এই জেলার সকল মুক্তিযোদ্ধাদের কল্যাণে ঐক্যবদ্ধ কাজ করে যাব।

সভাপতির সমাপনি বক্তব্যে বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আলী বলেন আজকের এই মুক্তিযোদ্ধাদের মিলন মেলার মাধ্যমে আমরা সবাই মিলেমিশে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করে যাব। সভার শেষে সকল বীর মুক্তিযোদ্ধারা একসাথে মধ্যহ্নভোজে মিলিত হন।