৬৫ মিনিট আগের আপডেট; রাত ১০:১৩; রবিবার ; ১২ জুলাই ২০২০

ফারসির মতো প্রাচীন ভাষাকে দূষিত করার অধিকার ট্রাম্পের নেই: ইরান

অনলাইন ডেস্ক: ১৩ জানুয়ারী ২০২০, ১৮:২৭

চলমান সরকারবিরোধী বিক্ষোভের সমর্থনে ফারসি ভাষায় মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের দেয়া টুইটের তীব্র প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে ইরান। ফারসি ভাষায় ট্রাম্পের কথা বলার অধিকার নেই বলেও দাবি করেছে দেশটি।

ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র সাইয়্যেদ আব্বাস মুসাভি বলেন, যে হাত দিয়ে ইরানের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ ও ইরানি নাগরিকের রক্ত ঝরানো হয়েছে সেই হাতে ফারসির মতো একটি প্রাচীন ভাষাকে দূষিত করার অধিকার তার নেই। খবর ইরনার।

ট্রাম্পের উদ্দেশে প্রশ্ন রেখে তিনি আরও বলেন, সম্প্রতি আপনি ইরানি জনগণের প্রিয় একজন বীরকে হত্যা করে সত্যিই কি তাদের পাশে দাঁড়িয়েছেন নাকি তাদের বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছেন?

সামরিক বাহিনীর অনিচ্ছাকৃত ভুলে ১৭৬ আরোহীসহ ইউক্রেনের একটি যাত্রীবাহী বিমান ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়ে ভূপাতিত করার কথা তেহরান স্বীকার করার পর দেশটির সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতা আয়াতুল্লাহ আলী খামেনির পদত্যাগ দাবি করেছে একদল ইরানি বিক্ষোভকারী।

রোববার ইংরেজি এবং ফারসি ভাষায় দুটি টুইট করে বিক্ষোভকারীদের সমর্থন জানিয়েছেন ট্রাম্প। টুইটার বার্তায় তিনি লিখেছেন, ‘ইরানের সাহসী ও ভুক্তভোগী জনগণকে: আমি রাষ্ট্রপতি হিসেবে ক্ষমতা গ্রহণের শুরু থেকেই আপনাদের পাশে আছি এবং আমার প্রশাসন আপনাদের সমর্থন দিয়ে যাবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা আপনাদের প্রতিবাদ নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করছি। আপনাদের সাহস আমাদের অনুপ্রেরণা যোগায়।’

ট্রাম্পের টুইটার বার্তার প্রতিক্রিয়ায় ইরানের সংস্কৃতি ও ইসলামি দিক-নির্দেশনামন্ত্রী সাইয়্যেদ আব্বাস সালেহি পাল্টা টুইটে বলেছেন, ইরানি সংস্কৃতির পরিচয় বহন করে ফারসি ভাষা। গতকাল যে ব্যক্তি ইরানের সাংস্কৃতিক স্থাপনাগুলোতে হামলার হুমকি দিয়েছে তার মুখে আজ ইরানি জনগণের সঙ্গে ফারসিতে কথা বলার চেষ্টা সত্যিই হাস্যকর।


সর্বমোট পাঠক সংখ্যা : ৬০