৪৯৬ মিনিট আগের আপডেট; দিন ৮:৫২; শনিবার ; ০৪ এপ্রিল ২০২০

কাকারা তাজুল উলুম মাদরাসার জন্য এমপি জাফর উপহার দিয়েছে ৩ কোটি টাকার একাডেমিক ভবন

এম জিয়াবুল হক, চকরিয়া ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০০:১৭

প্রতিশ্রুতির আলোকে অবশেষে কক্সবাজার-১ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ জাফর আলমের ডিও লেটারে ৩ কোটি ১২ লাখ টাকা বরাদ্দে চারতলা বিশিষ্ট নতুন একাডেমিক ভবন পেয়েছেন চকরিয়া উপজেলার অন্যতম দ্বীনি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান কাকারা তাজুল উলুম মাদরাসা। প্রতিষ্ঠার পর থেকে মাদ্রাসার মূল একাডেমিক ভবনটি অনেক পুরোনো এবং জরাজীর্ণ হওয়ায় শিক্ষার্থীদের মাঝে পাঠদান ব্যাহত হচ্ছিল।

তবে নতুন একাডেমিক ভবনটি নির্মাণ কাজ শুরু হওয়ায় এখন ভবন সংকট থেকে দুর্ভোগমুক্ত হচ্ছে দ্বীনি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানটি। এতে শিক্ষক শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি এলাকাবাসির মাঝে অন্যরকম উৎসব আনন্দ বিরাজ করছে।

বুধবার দুপুরে মাদরাসা মিলনায়তনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে নতুন একাডেমিক ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন উদ্বোধন করেছেন চকরিয়া-পেকুয়া আসনের সংসদ সদস্য ও চকরিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ জাফর আলম। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মোনাজাত পরিচালনা করেন কাকারা তাজুল উলুম মাদরাসার শিক্ষক ও সোসাইটি জামে মসজিদের খতিব আলহাজ হাফেজ বশির আহমদ।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কাকারা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ শওকত ওসমান, শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর কক্সবাজারের উপ-সহকারী প্রকৌশলী মো. পারভেজ ইষাণ ঠিকাদার দীপঙ্কর বড়ুয়া পিন্টু, চকরিয়া কলেজের প্রভাষক মুজিবুল হক রতন, মাদরাসার সুপার বেলাল উদ্দিন, সমাজসেবক আরমান, প্রকৌশলী রাশেদ, সমাজসেবক আবদুর রাজ্জাক, আশরাফুল ইসলাম বাহাদুর, ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শাহাদাত হোসেন। এছাড়াও অনুষ্ঠানে মাদরাসার সকল শিক্ষক, শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও সুধীজন উপস্থিত ছিলেন।

জানা গেছে, কক্সবাজার-১ আসনের এমপি আলহাজ জাফর আলমের বিশেষ তদবিরে চলতি অর্থবছর কক্সবাজার শিক্ষা প্রকৌশল বিভাগের অর্থায়নে প্রায় ৭০ কোটি টাকা বরাদ্দের বিপরীতে চকরিয়া ও পেকুয়া উপজেলার ৩২টি স্কুল ও মাদ্রাসার অবকাঠামোগত উন্নয়ন কাজ পুরোদমে এগিয়ে চলছে। স্থানীয় সংসদ সদস্য আলহাজ জাফর আলমের নির্বাচনী প্রতিশ্রুতির আলোকে একবছরে সরকার এসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের অবকাঠামোগত উন্নয়নে উল্লেখিত পরিমাণ টাকা বরাদ্দ দিয়েছে।

কাকারা তাজুল উলুম মাদরাসার শিক্ষক হাফেজ বশির আহমদ বলেন, এই মাদ্রাসাটি প্রতিষ্ঠা হওয়ার পর থেকে এলাকায় দ্বীনি শিক্ষার অগ্রগতিতে অসাধারণ ভুমিকা পালন করে চলেছে। কিন্তু মাদ্রাসার মূল একাডেমিক ভবনটি অনেক পুরোনো এবং জরাজীর্ণ হওয়ায় পাঠদান ব্যাহত হচ্ছিল। এই অবস্থায় বর্তমান সরকার মাদ্রাসায় নতুন একাডেমিক ভবন দেওয়ায় দীর্ঘদিন পর ভবন সংকটের অবশান হচ্ছে। নতুন একাডেমিক ভবন নির্মাণে সার্বিক সহযোগিতা করায় কক্সবাজার-১ আসনের এমপি জাফর আলমকে মাদ্রাসার পক্ষ থেকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। কারণ তিনি এমপি হিসেবে এই ভবন নির্মাণের ডিও না দিলে আজ এই ভবন পাওয়া যেত না। 

কক্সবাজার-১ আসনের সংসদ সদস্য ও চকরিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ জাফর আলম বলেন, স্বাধীনতার পর থেকে এলাকায় অনেকে জনপ্রতিনিধি হয়েছেন। কিন্তু তারা দৃশ্যমান কোন উন্নয়ন করতে পারেনি। করতে পারেননি কোন রাস্তাঘাট, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের উল্লেখযোগ্য কোন ভবন। 

তিনি বলেন, আমি ২০১৮ সালে সাংসদ নির্বাচিত হওয়ার পর শিক্ষাকে প্রাধান্য দিয়েই দায়িত্ব পালন শুরু করেছি। যার প্রেক্ষিতে আমার নির্বাচনী এলাকায় ৫টি মাদ্রাসা ও ১১টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে একেবারে চার তলা বিশিষ্ট নতুন একাডেমিক ভবন নির্মাণ ছাড়াও অসংখ্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের উন্নয়নে জোর পদক্ষেপ গ্রহণ করি। এতে এসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের উন্নয়নে সরকার প্রয়োজনীয় অর্থ বরাদ্দ নিশ্চিতের মাধ্যমে ইতোমধ্যে প্রতিটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে উন্নয়ন কর্মকাণ্ড শুরু হয়েছে। 

 


সর্বমোট পাঠক সংখ্যা : ১৩১