৬৫ মিনিট আগের আপডেট; রাত ৭:২৫; শুক্রবার ; ১০ জুলাই ২০২০

করোনা থেকে সেরে উঠেছেন ১ লাখের বেশি মানুষ

অনলাইন ডেস্ক: ২৪ মার্চ ২০২০, ১৩:৩৭

বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়েছে ভয়াবহ করোনাভাইরাস। এতে ইতিমধ্যে প্রায় ৪ লাখের মতো মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন। প্রাণ হারিয়েছেন ১৬ হাজারের বেশি মানুষ। তারপরও আশার কথা এই যে, এই মহামারিতে আক্রান্ত এক-তৃতীয়াংশই ইতিমধ্যে সেরে উঠেছেন। এই সেরা উঠাদের সংখ্যা ১ লাখেরও বেশি। ওয়ার্ল্ডোমিটার পরিসংখ্যান থেকে জানা যায়, সোমবার পর্যন্ত সেরে উঠেছেন ১ লাখ ২৪শ ২৯ জন।

আরও সুখবর এই যে, সোমবার করোনায় সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত ইতালি, স্পেন, ফ্রান্স ও ইরানে কেউ নতুন করে আক্রান্ত হননি, মারাও যায়নি কেউ। সংক্রমণ ঘটার পর দক্ষিণ কোরিয়ায়ও একদিনে সর্বনিম্ন নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে। স্থিতিশীল রয়েছে চীনের পরিস্থিতিও। তবে ভিন্ন চিত্র যুক্তরাজ্য ও যুক্তরাষ্ট্রে। বাংলাদেশেও একদিনে রোগী বেড়েছে ছয়জন, যা একদিনে সর্বোচ্চ।

ওয়ার্ল্ডোমিটারের দেয়া সর্বশেষ পরিসংখ্যান বলছে, সোমবার পর্যন্ত বিশ্বের ১৯৫টি দেশ ও অঞ্চলে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৩ লাখ ৮১ হাজার ৭৬১ জন। এর মধ্যে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১ লাখ ২৪ হাজার ২৯ জন। মারা গেছেন ১৬ হাজার ৫৫৮ জন। বাকিরা বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

গত শনিবার ইতালিতে রেকর্ড সংখ্যক ৭৯৩ জনের মৃত্যুর পর রোববার তা ৬৫১ জনে নেমে এসেছিল। রোববার মৃতের সংখ্যা আরও কমে নেমে আসে ৬০২ জনে। নতুন আক্রান্তের সংখ্যাও ৯ শতাংশ থেকে ৮ দশমিক ১ শতাংশে কমে এসেছে। ইতালিতে মৃতের মোট সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬ হাজার ৭৭। মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৬৩ হাজার ৯২৭।

দক্ষিণ কোরিয়ায় গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে ৬৮ জন। চীন থেকে দেশটিতে ছড়ানোর পর একদিনে এত কম রোগী আগে দেখা যায়নি। দক্ষিণ কোরিয়ায় আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৮ হাজার ৯৬১; মারা গেছেন মোট ১১১ জন।

আক্রান্তের দিক থেকে এখনও শীর্ষে থাকা চীনে ৮১ হাজার ৪৯৬ জন কভিড-১৯ রোগীর মধ্যে প্রায় ৭৩ হাজার জন সুস্থ হয়ে উঠেছেন।

আক্রান্তের সংখ্যার দিক থেকে ইরান, স্পেন, জার্মানি, যুক্তরাজ্যকে ছাড়িয়ে তৃতীয় স্থানে উঠে এসেছে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যা একদিনে ৮ হাজার বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪১ হাজার ৭০৮ জনে। মৃতের সংখ্যা ছাড়িয়েছে পাঁচশ।

যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে ভয়াবহ অবস্থা নিউ ইয়র্কে। সেখানে এখন ১৫ হাজারের বেশি মানুষ নভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত। বিশ্বে কভিড-১৯ রোগী যত, তার ৫ শতাংশই নিউইয়র্কে। রাজ্যটিতে মারা গেছেন ৯৮ জন।

যুক্তরাজ্যেও মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৩৩৫ হয়েছে। আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬ হাজার ৪২৪ জন। স্পেনে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২ হাজার ২০৬ জনে, দেশটিতে আক্রান্ত এখন ৩৩ হাজার ৮৯ জন। ইরানের মোট আক্রান্ত এখন ২৩ ০৪৯ জন, মারা গেছেন ১৮১২ জন।


সর্বমোট পাঠক সংখ্যা : ১০৫