২৪ মিনিট আগের আপডেট; রাত ৬:৪৪; শুক্রবার ; ১০ জুলাই ২০২০

ভারতে প্রথমবারের মতো একদিনে ৮ হাজারের বেশি আক্রান্ত

অনলাইন ডেস্ক: ৩১ মে ২০২০, ১৬:৩৩

ভারতে প্রতিদিনই নতুন রেকর্ড গড়ছে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা। শুক্রবার একদিনে দেশটিতে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৭ হাজার ৯৬৪ জন, যা ছিল গতকাল পর্যন্ত একদিনে সর্বোচ্চ আক্রান্তের রেকর্ড। 

সেই রেকর্ড ভেঙে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে নতুন করে ৮ হাজার ৩৮০ জন প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। রোববার সকালে দেশটির কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এ তথ্য নিশ্চিত করেছে। এই প্রথম দেশটিতে একদিনে ৮ হাজারের বেশি আক্রান্তের ঘটনা ঘটল। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, সর্বোচ্চ আক্রান্তের রেকর্ডের দিনে করোনায় প্রাণহানি হয়েছে ১৯৩ জনের।

করোনায় সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত রাজ্য মহারাষ্ট্র, সেখানে এখন পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা ৬২ হাজার ছাড়িয়েছে। রাজধানী দিল্লিতে এখন পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা ১৮ হাজার। সেখানে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছে ১ হাজার ১৬৩ জন।

আন্তর্জাতিক জরিপ সংস্থা ওয়ার্ল্ডওমিটারসে দেয়া সর্বশেষ তথ্যানুযায়ী, ভারতে করোনায় এখন পর্যন্ত ১ লাখ ৮২ হাজার ৪৯০ জন আক্রান্ত হয়েছেন। মারা গেছে ৫ হাজার ১৮৬ জন। এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছে ৮৬ হাজার ৯৮৪ জন। হাসপাতাল ও আইসোলেশনে চিকিৎসাধীন ৯০ হাজার ৩২০ জন। এদের মধ্যে ৮ হাজার ৯৪৪ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

এমন পরিস্থিতিতে শনিবার দেশজুড়ে ফের লকডাউনের মেয়াদ বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে মোদি সরকার।

সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়া জানিয়েছে, দেশজুড়ে চলমান লকডাউনের মেয়াদ ৩০ মে শেষ হওয়ার কথা ছিল। সেই মেয়াদকে বাড়িয়ে আগামী ৩০ জুন পর্যন্ত লকডাউন বৃদ্ধির ঘোষণা দিল ক্ষমতাসীন বিজেপি সরকার। তবে এবারের লকডাউন বিষয়ে বেশ কিছু পরিবর্তন এনেছে দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে টাইমস অব ইন্ডিয়া জানিয়েছে, এবারের লকডাউনে ঝুঁকিপূর্ণ এলাকা ছাড়া অন্যান্য স্থানে শপিংমল, রেস্তোরাঁ এবং মন্দির-মসজিদ আগামী ৮ জুন থেকে খোলা থাকবে। কিন্তু কন্টেইনমেন্ট জোন বা সিল এলাকায় কোনো মল বা রেস্তোরাঁ খোলা রাখা যাবে না।

এ ছাড়া পঞ্চম ধাপের লকডাউনে রাতে জারি করা কারফিউর সময় সন্ধ্যা ৭টা থেকে সকাল ৭টার পরিবর্তে রাত ৯টা থেকে ভোর ৫টা পর্যন্ত করা হয়েছে।

এ অবস্থায় দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেছেন, এখন পর্যন্ত সতর্ক থাকতে হবে। দেশজুড়ে অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড চালু হয়েছে। তাই ৬ ফুটের দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। বাইরে বের হলে অবশ্যই মাস্ক ব্যবহার করতে হবে।

সূত্র: ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস, টাইমস অব ইন্ডিয়া, ওয়ান ইন্ডিয়া


সর্বমোট পাঠক সংখ্যা : ১২৯