৫৬৯ মিনিট আগের আপডেট; দিন ৭:১৪; মঙ্গলবার ; ০৮ মার্চ ২০২১

গরীবের ‘চিকিৎসক’ মাধব চন্দ্র চৌধুরী

এম.আর মাহামুদ ০১ জুলাই ২০২০, ১৯:৪৩

একজন গরীবের চিকিৎসক ডাঃ মাধব চন্দ্র চৌধুরী। দীর্ঘদিন ধরে চকরিয়া পৌর সদরে বিভিন্ন এলাকায় হতদরিদ্র রোগীদের স্বল্প ফিতে চিকিৎসা সেবা দিয়ে যাচ্ছেন। তিনি এক সময় সরকারি হাসপাতালে উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার হিসাবে কর্মরত ছিলেন।

পরে সরকারি চাকুরি ছেড়ে হতদরিদ্র রোগীদের চিকিৎসা সেবা দিয়ে যাচ্ছেন নিজস্ব চেম্বারে সকাল থেকে বিকাল, বিকাল থেকে রাত ১০ টা পর্যন্ত তার চেম্বারে দেখা যায় অসংখ্য রোগী। রোগীদের মধ্যে বেশিরভাগই নারী ও শিশু। তিনি তাদের সাধ্যমত চিকিৎসা দিয়ে মন জয় করেছেন।

কোভিড’১৯ সংক্রামণ ছড়িয়ে পড়ার পর ছোঁয়াচে রোগ হওয়ায় চকরিয়া সদরের সরকারি-বেসরকারি হাসপাতাল ও বেশিরভাগ ডাক্তারের চেম্বারে চিকিৎসা সেবা তেমন চলেনি বলা চলে। সামাজিক দূরত্বের অজুহাত দেখিয়ে অনেক ডাক্তার রোগীই দেখেনি। এমনকি সরকারি হাসপাতালের বহির্বিভাগে রোগী দেখা প্রায় বন্ধই ছিল। ফলে সর্দ্বি-কাশি সহ অন্যান্য রোগে আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা অনেকটা ফার্মেসী নির্ভর হয়ে পড়ে।

এ সময় ডাঃ মাধব চন্দ্র চৌধুরী দৃঢ় মনোবল নিয়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে হতদরিদ্র রোগীদের চিকিৎসা সেবা দিয়ে অনন্য নজির সৃষ্টি করেছেন। তার এ দৃষ্টান্ত চকরিয়ার দরিদ্র রোগীদের মনে স্মরণীয় হয়ে থাকবে। অধিকাংশ হতদরিদ্র রোগীর অভিমত, যখন আমরা সামান্য রোগে-শোকে আক্রান্ত হয়ে কোন ডাক্তারের চেম্বারে গিয়ে স্থান পায়নি।

চলমান দূর্যোগকালে (কোভিড’১৯) ডাঃ মাধব চন্দ্র চৌধুরীর চিকিৎসা সেবায় আমরা কৃতজ্ঞ। এখনও তিনি আগের নিয়মে অসুস্থ রোগীদের স্বাস্থ্যসেবা দিয়ে যাচ্ছেন। এভাবে গরীবের চিকিৎসক হিসেবে খ্যাত ডাঃ শম্ভু দে রোগীদের সেবা দিতে গিয়ে কোভিড’১৯ এ আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছে।

যে যা বলুক চকরিয়া ডাঃ শম্ভু দে গ্রাম্য চিকিৎসক হলেও হাড়ভাঙ্গা বিশেষজ্ঞ হিসেবে খ্যাতির সঙ্গে চিকিৎসা সেবা দিয়েছে অত্র এলাকার দরিদ্র জনগোষ্ঠীকে। অপরদিকে কোভিড’১৯ চলাকালীন সময় চকরিয়ার জনপ্রিয় যিনি এখন কক্সবাজার সদর হাসপাতালে কর্মরত ডাঃ কবির আহমদ ও স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার শাহবাজ করোনা রোগীদের সেবা দিতে গিয়ে নিজেরাই করোনা রোগে আক্রান্ত।

আমি মহান রাব্বুল আলামীনের দরবারে তাদের সুস্থতার কামনা করছি। এছাড়া লামা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মোহাম্মদুল হক তিনিও করোনায় আক্রান্ত হয়ে সুস্থ হয়ে রোগীদের চিকিৎসা সেবা দিয়ে যাচ্ছেন। আমি ব্যক্তিগত ভাবে এসব মহানুভব ডাক্তারদের কাছে ঋণী।

লেখক: 
সিনিয়র সাংবাদিক ও কলামিস্ট
সাবেক সভাপতি চকরিয়া প্রেসক্লাব
চকরিয়া প্রতিনিধি, দৈনিক সমকাল


সর্বমোট পাঠক সংখ্যা : ৩৩৬